২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ || ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ


শিরোনাম :
  ধামরাই‌য়ে মা‌লিকানা সম্প‌ত্তি জা‌লিয়া‌তির প্রতিবা‌দে সংবাদ স‌ম্মেলন       বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে পুনাকের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ       নন্দীগ্রামে ৯টি ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতার       নন্দীগ্রামে ১৫৬ পরিবার জমি ও গৃহ পেলেন       নন্দীগ্রামে নালিশী সম্পত্তিতে সংঘর্ষ এড়াতে আদালতের স্থিতি অবস্থা জারি       জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে এবছর নিমন্ত্রণ পাননি আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নায়িকা ববিতা।       কালিয়াকৈরে অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে উৎসর্গ ফাউন্ডেশন এর শীতবস্ত্র বিতরণ       নৌকা মার্কা ছাড়া নন্দীগ্রামে মানুষের উন্নয়ন সম্ভব নয়       নন্দীগ্রামে মেয়র প্রার্থী শান্ত’র ব্যাপক গণসংযোগ       ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হলেন ফরিদুল হক    


নন্দীগ্রামে সবজির বাজারে স্বস্তি, চড়া চালের দাম

Exif_JPEG_420

মামুন আহমেদ(স্টাফ রিপোর্টার)এসইটিভি নিউজঃ

শীতকালীন সবজি বাজারে আসায় দীর্ঘদিন পর বগুড়ার নন্দীগ্রামে কমতে শুরু করেছে সবজির দাম। এছাড়া বাজারে সবজির সরবরাহও বেড়েছে। তবে সবজির বাজারের এই স্বস্তি হারিয়ে যাচ্ছে চালের বাজারে গিয়ে। আমন ধানের মৌসুম শুরু থেকে এখনও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে চাল।

উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে এবং ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নন্দীগ্রামে প্রায় সবধরনের শীতকালীন সবজির দাম অর্ধেকেরও কম দামে নেমে এসেছে। এর ফলে স্বস্তি ফিরেছে ক্রেতাদের মাঝে। বর্তমানে বেগুন ৩০ টাকা, শিম ৪০ টাকা, পেঁপে ২৫ টাকা, করলা ৩০ টাকা, ফুলকপি ৩০ টাকা, পাতাকপি ৩০ টাকা, পেঁয়াজ ৫০ টাকা, মূলা ১০ টাকা ও আলু আগের মতোই ৪৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

সবজির মতো মাছের বাজারও রয়েছে কিছুটা স্বস্তি। বাজারে (আকারভেদে) প্রতিকেজি শিং মাছ ২০০ থেকে ৫০০ টাকা, রুই মাছ ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা, মৃগেল ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা, পাঙ্গাস ১০০ থেকে ১৬০ টাকা, কাতলা ১৮০ থেকে ২৮০ টাকা, তেলাপিয়া ১০০ থেকে ১৫০ টাকা, সিলভার কার্প ১০০ থেকে ১৮০ টাকা, মলা মাছ ৩০০ টাকা, দেশি টেংরা ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

ক্রেতারা সবজি ও মাছের বাজারে খুশি হলেও স্বস্তি মিলছেনা চালের বাজারে গিয়ে। বাজারে প্রতিকেজি মিনিকেট চাল ৫৮ টাকা, কাটারিভোগ চাল ৫৫ টাকা ও ৪৯ চাল ৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

কুন্দারহাটে বাজার করতে আসা আব্দুল মতিন জানান, সবজির দাম কমায় সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরতে শুরু করেছে। কয়েক দিনের ব্যবধানে শাক-সবজির দাম অর্ধেকে নেমেছে। এতে করে আমাদের মতো সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষজনের জন্য বেশ উপকার হয়েছে।

ক্রেতা বাসুদেব সরকার বলেন, তরিতরকারি ও মাছের বাজারে ভালই লাগলো। চাল ও তেল কিনতেই সব শেষ। খেটে খাওয়া মানুষদের জন্য সব কিছুর কম দাম হলেই ভালো হয়।

 

এসইটিভি নিউজ/মামুন


Top